মধ্যবর্তী নির্বাচনকেও লক্ষ্য বানাতে পারে রাশিয়া : সিআইএ প্রধান

0

 

স্কাই নিউজ প্রতিবেদক: যুক্তরাষ্ট্রে চলতি বছরের শেষদিকে হতে যাওয়া মধ্যবর্তী নির্বাচনেও রাশিয়া হস্তক্ষেপ করতে পারে বলে ধারণা করছেন মার্কিন কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থার (সিআইএ) পরিচালক মাইক পম্পেও।

বিবিসিকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে তিনি বলেছেন, যুক্তরাষ্ট্র ও ইউরোপের ক্ষতি করতে মস্কোর চেষ্টা কমেছে এমন কোনো লক্ষণ দেখা যাচ্ছে না।

সিআইএ প্রধানের শঙ্কা, উত্তর কোরিয়া কয়েক মাসের মধ্যে যুক্তরাষ্ট্রে ক্ষেপণাস্ত্র হামলার সক্ষমতা অর্জন করতে পারে।

মস্কো এবং ট্রাম্প অস্বীকার করলেও মার্কিন গোয়েন্দাসংস্থাগুলো ২০১৬-র প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে রাশিয়ার হস্তক্ষেপের বিষয়ে অভিযোগ করে আসছে। ওভাল অফিসে বসার পর প্রথম বছরের পুরোটাই ট্রাম্পকে এ অভিযোগ মোকাবেলা করতে হয়েছে। নির্বাচনী প্রচারে ক্রেমলিনের সঙ্গে রিপাবলিকান শিবিরের সংযোগ এবং সম্ভাব্য হস্তক্ষেপ নিয়ে মার্কিন কংগ্রেস ও বিচার বিভাগে তদন্তও চলছে।

ভার্জিনিয়ার ল্যাংলিতে সিআইএর সদরদপ্তরে বিবিসির সঙ্গে কথা বলেন পম্পেও।

“আমরা বিশ্বের সেরা গোয়েন্দা সংস্থা। আমরা বের হই এবং মার্কিন জনগণের হয়ে যে কোনো ভাবে হোক তথ্য চুরি করি। আমি আবারও (সিআইএকে) সামনের পায়ে দাঁড় করাতে চাই,” বলেন তিনি।

দায়িত্ব পালনের বছরখানেকের মাথায় সিআইএর এ প্রধান বলছেন, তার লক্ষ্য গোয়েন্দা সংস্থাটির কার্যক্রম আরও বিস্তৃত ও ভারমুক্ত করা।

সন্ত্রাসবাদবিরোধী লড়াইয়ে দুই দেশের মধ্যে সহযোগিতা থাকার কথা স্বীকার করলেও পম্পেও বলছেন, তার দৃষ্টিতে রাশিয়া এখনও যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিদ্বন্দ্বী; ইউরোপের দেশগুলোতে মস্কোর হস্তক্ষেপ নিয়ে উদ্বেগের কথাও জানান তিনি।

রাশিয়ার ধ্বংসাত্মক কর্মকাণ্ডের পাল্টা জবাব দিতে যুক্তরাষ্ট্র কাজ করছে বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

বিবিসিকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে তিনি বলেছেন, যুক্তরাষ্ট্র ও ইউরোপের ক্ষতি করতে মস্কোর চেষ্টা কমেছে এমন কোনো লক্ষণ দেখা যাচ্ছে না।

সিআইএ প্রধানের শঙ্কা, উত্তর কোরিয়া কয়েক মাসের মধ্যে যুক্তরাষ্ট্রে ক্ষেপণাস্ত্র হামলার সক্ষমতা অর্জন করতে পারে।

মস্কো এবং ট্রাম্প অস্বীকার করলেও মার্কিন গোয়েন্দাসংস্থাগুলো ২০১৬-র প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে রাশিয়ার হস্তক্ষেপের বিষয়ে অভিযোগ করে আসছে। ওভাল অফিসে বসার পর প্রথম বছরের পুরোটাই ট্রাম্পকে এ অভিযোগ মোকাবেলা করতে হয়েছে। নির্বাচনী প্রচারে ক্রেমলিনের সঙ্গে রিপাবলিকান শিবিরের সংযোগ এবং সম্ভাব্য হস্তক্ষেপ নিয়ে মার্কিন কংগ্রেস ও বিচার বিভাগে তদন্তও চলছে।

ভার্জিনিয়ার ল্যাংলিতে সিআইএর সদরদপ্তরে বিবিসির সঙ্গে কথা বলেন পম্পেও।

“আমরা বিশ্বের সেরা গোয়েন্দা সংস্থা। আমরা বের হই এবং মার্কিন জনগণের হয়ে যে কোনো ভাবে হোক তথ্য চুরি করি। আমি আবারও (সিআইএকে) সামনের পায়ে দাঁড় করাতে চাই,” বলেন তিনি।

দায়িত্ব পালনের বছরখানেকের মাথায় সিআইএর এ প্রধান বলছেন, তার লক্ষ্য গোয়েন্দা সংস্থাটির কার্যক্রম আরও বিস্তৃত ও ভারমুক্ত করা।

সন্ত্রাসবাদবিরোধী লড়াইয়ে দুই দেশের মধ্যে সহযোগিতা থাকার কথা স্বীকার করলেও পম্পেও বলছেন, তার দৃষ্টিতে রাশিয়া এখনও যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিদ্বন্দ্বী; ইউরোপের দেশগুলোতে মস্কোর হস্তক্ষেপ নিয়ে উদ্বেগের কথাও জানান তিনি।

রাশিয়ার ধ্বংসাত্মক কর্মকাণ্ডের পাল্টা জবাব দিতে যুক্তরাষ্ট্র কাজ করছে বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

 

LEAVE A REPLY

six − two =