৩১ তারিখ শুধুই চাঁদের

0

স্কাই নিউজ প্রতিবেদক: দেড়শো বছরেরও বেশি সময় পর আগামী ৩১ জানুয়ারি, আজব পূর্ণগ্রাস চন্দ্রগ্রহণ। আজব বলছি কারণ, প্রথমত, এই পূর্ণগ্রাস চন্দ্রগ্রহণের নাম মহাকাশ বিজ্ঞানীরা দিয়েছেন ব্লাড–ব্লু–সুপার মুন। কারণ, এই রাতে চাঁদকে দেখাবে আরও বড়, উজ্জ্বল এবং গাঢ় কমলা বা লালচে রঙের। পৃথিবীর মাটির প্রতিচ্ছবি চাঁদের উপর পড়ায় চাঁদকে লালচে দেখাবে। এখন প্রশ্ন উঠতে পারে, এর আগেও পূর্ণগ্রাস চন্দ্রগ্রহণ হয়েছে। কিন্তু তখন কেন এরকম লালচে দেখায়নি চাঁদকে?

কারণ, এবারের পূর্ণগ্রাস হবে সুপার মুনে, যার অর্থ, এই দিন চাঁদ পৃথিবীর কক্ষপথের অনেকটাই কাছাকাছি আসবে, সে জন্য চাঁদকে আরও বড় এবং উজ্জ্বল দেখাবে। পৃথিবীর বেশি কাছাকাছি থাকায় পৃথিবীর মাটির প্রতিফলন হবে চাঁদের বুকে, যা চাঁদের রং পাল্টে লালচে করে দেবে। আর ব্লু মুনের অর্থ, যদি কোনও বছর ১২টার বদলে ১৩টা পূ্র্ণিমা হয় বা ১ মাসে যদি ২ বার পূর্ণিমা দেখা যায়, তাহলে সেই দ্বিতীয় পূর্ণিমাকে ‘ব্লু মুন’ বলা হয়। এর সঙ্গে চাঁদের রং নীলচে হওয়ার কোনও সম্পর্ক নেই। যেহেতু এবার জানুয়ারিতে দুটো পূর্ণিমা, তাই দ্বিতীয় পূর্ণিমা বা ব্লু মুনেই হবে পূর্ণগ্রাস চন্দ্রগ্রহণ।

পূর্ণগ্রাস চন্দ্রগ্রহণ থাকবে প্রায় ৭৬ মিনিট। পূর্ব এবং মধ্য এশিয়া, ইন্দোনেশিয়া, নিউ জিল্যান্ড, অস্ট্রেলিয়া, আলাস্কা, হাওয়াই, কানাডার উত্তর–পশ্চিমাঞ্চলে দেখা যাবে পূর্ণগ্রাস চন্দ্রগ্রহণ।
ছবি: নাসা
তথ্যসূত্র: আজকাল

LEAVE A REPLY

twenty − three =