হেয়ারস্টাইলের খুঁটিনাটি …

0

স্কাই নিউজ প্রতিবেদক: কী ধরনের হেয়ারস্টাইল মানাবে? কেমনভাবে নেবেন চুলের যত্ন? জেনে নিন, আমাদের বিশেষজ্ঞের থেকে।

১. গায়ের রঙের সঙ্গে হেয়ার কাটের কোনও সম্পর্ক নেই। মুখের শেপ এবং কপালের আকার অনুযায়ী হেয়ার কাট করান। আপনার মুখের আকৃতিতে সফ্ট ফ্রিঞ্জ ভাল লাগবে। এতে কপালও ঢাকা পরবে এবং মুখও গোল লাগবে। তবে খেয়াল রাখবেন ফ্রিঞ্জ যেন লম্বালম্বিভাবে মুখে না পড়ে। তাতে মুখ আরও লম্বা লাগবে। বরং এমনভাবে হেয়ার কাট করান যাতে দু’পাশে কিছুটা ভলিউম অ্যাড হয়। মুখ যদি রোগা হয় সেক্ষেত্রে শর্ট হেয়ার কাটও বেশ ভাল লাগবে।

২. যদি কাঁধ অবধি বা তার থেকে লম্বা চুল হয়, তাহলে রাতে চুল হাল্কাভাবে বেঁধে শুতে যাওয়াই ভাল। প্রথমে বড় দাঁনার চিরুণি দিয়ে চুল ব্রাশ করে নিন। এরপর লুজ় পনিটেল বা বিনুনি বেঁধে শুতে যান। চুল বাঁধার জন্য ইলাস্টিক ব্যবহার করতে পারেন, কিন্তু রাবার ব্যান্ড ব্যবহার করবেন না। খুব টাইট করেও চুল বাঁধবেন না। এতে কপাল বড় হবার পাশাপাশি চুল পড়া বাড়তে পারে।

৩. ভাল শেপের মুখে মোটামুটি সব ধরনের হেয়ার স্টাইলই মানায়। আপনি সাইড পার্টিং এবং সাইড সোয়েপ্ট ফ্রিঞ্জ ট্রাই করতে পারেন। ফ্যাশনেও ভীষণভাবে ইন, এবং দেখতেও ভাল লাগবে। কাঁধ অবধি চুল রাখতে চাইলে লেয়ারড কাটও আপনাকে ভাল মানাবে। চেষ্টা করবেন থুতনি থেকে লেয়ারস লাগবে।

LEAVE A REPLY

15 − 1 =