সামনে চ্যালেঞ্জ নূরুল হুদার

0

স্কাই নিউজ প্রতিবেদক: বাংলাদেশে প্রধান নির্বাচন কমিশনারের (সিইসি) মতো গুরুত্বপূর্ণ পদে বসে কে এম নূরুল হুদা প্রথম বছরটি সফলভাবেই পার করছেন বলে মনে করছেন পর্যবেক্ষকরা; তবে তারা বলছেন, আসল চ্যালেঞ্জ অপেক্ষা করছে তার সামনে।

এই বছরে শেষ দিকে অনুষ্ঠেয় একাদশ সংসদ নির্বাচনে বিএনপিকে আনাটাই তার জন্য প্রধান চ্যালেঞ্জ হিসেবে দেখছেন পর্যবেক্ষকরা।

“রোডম্যাপ ধরে এগোতে সব দলকে ভোটে আনাই এখন বড় চ্যালেঞ্জ,” বলেছেন নির্বাচন পর্যবেক্ষকদের মোর্চা ইলেকশন ওয়ার্কিং গ্রুপের (ইডাব্লিউজি) পরিচালক আব্দুল আলীম।

বিএনপিসহ অধিকাংশ দলের বর্জনের মধ্যে অনুষ্ঠিত ২০১৪ সালের নির্বাচনের অভিজ্ঞতায় বিদেশিরাও সব দলের অংশগ্রহণে একাদশ সংসদ নির্বাচনের প্রত্যাশা জানিয়ে আসছেন।

নূরুল হুদার সঙ্গে বৈঠক শেষে ইউরোপীয় পার্লামেন্টের প্রতিনিধি দলের নেতা জ্যঁ ল্যামবার্টও এক্ষেত্রে নির্বাচন কমিশনের স্বাধীন ভূমিকার কথাই জোর দিয়ে বলেন।

ল্যামবার্টও বলেন, তারা ইসিকে এমন ভূমিকায় দেখতে চায়, যেন নির্বাচনে সব রাজনৈতিক দলের অংশ নেওয়ার পথ প্রশস্ত হয়।

বাংলাদেশে এই পর্যন্ত যত নির্বাচন কমিশনার এসেছেন, তাদের মধ্যে খুব কম ব্যক্তিই বিতর্ক এড়িয়ে বিদায় নিতে পেরেছেন।

সেই প্রেক্ষাপটে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ ও সংসদের বাইরে থাকা বিএনপির দূরত্বের মধ্যে গত বছরের ১৫ ফেব্রুয়ারি সিইসির দায়িত্ব নেওয়ার পর নূরুল হুদার ভূমিকা এখনও প্রশ্নের মুখে পড়েনি।

নির্বাচনকালীন সরকার কিংবা খালেদার রায় নিয়ে ইসির যে কিছু যে করার নেই তা সিইসিসহ নির্বাচন কমিশনাররা বলে আসছেন। ইসির ভাষ্য, সরকারের ধরন কী হবে তা সংবিধানে থাকবে, যা ঠিক করবে সংসদ। আর খালেদার বিষয়টি নির্ভর করবে আদালতের সিদ্ধান্তের ওপর।

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য মাহবুবুর রহমান বলেন, “ ১ বছরে বর্তমান কমিশন যা করেছেন, তার চেয়ে বেশি চ্যালেঞ্জ সামনে। সবার আস্থা অর্জন করতে পারলেই তারা ভালো নির্বাচন করতে পারবেন।”

 

 

 

 

LEAVE A REPLY

19 − eight =