মহাকাশ থেকে ছিটকে আসছে ভাঙা স্পেস-স্টেশন !

0

স্কাই নিউজ প্রতিবেদক:  ২০১৭ সালের মার্চ মাসেই তাদের একটি উপগ্রহ, তিয়ানগং-১ অকেজো হয়ে যায় বলে ইউএন-কে জানিয়েছিল চিন। যদিও এর বেশি আর কোনও তথ্য তারা জানায়নি। সম্প্রতি, সংবাদসংস্থা রয়টার্সের এক খবর অনুযায়ী, তিয়ানগং-১ স্পেস স্টেশনটি এখন আয়ত্তের বাইরে চলে গিয়েছে বলে জানায় চিন।

অর্থাৎ, তিয়ানগং-১ এখন নিজের ইচ্ছামতো মহাকাশে ঘুরে বেড়াচ্ছে। কিন্তু, শুধুমাত্র ঘুরে বেড়ালে তো কোনও অসুবিধাই হতো না। কিন্তু, সেটি এখন তীব্র গতিতে ধেয়ে আসছে পৃথিবীর দিকেই। কারণ বিজ্ঞান বলে, যা একবার উপরে যায়, তা এক সময়ে নীচে আসবেই। এবং এই তত্ত্বের জন্যই ভয় পাচ্ছেন মহাকাশ বিজ্ঞানীরা।

সংবাদসংস্থার খবর অনুয়ায়ী, তিয়ানগং-১ উপগ্রহের ওজন প্রায় ১৮ হাজার পাউন্ড। ফলে, এই বস্তুটি যেখানে এসে পড়বে, সেই জায়গার কী হাল হতে পারে, তা নিয়ে উদ্বেগ থাকাটাই স্বাভাবিক। কিন্তু, বিজ্ঞানীদদের মতে, উপগ্রহটি তার সম্পূর্ণ ওজন নিয়ে পৃথিবীকে আঘাত করবে না। মহাকাশের দীর্ঘ পথ পাড়ি দিতে দিতেই তা ভেঙে যাবে ছোট ছোট টুকরোয়, জানিয়েছেন ক্যালিফর্নিয়ার এরোস্পেস কর্পোরেশন-এর বৈজ্ঞানিক অ্যান্ড্রু আব্রাহাম।

স্বাভাবিকভাবেই, সে ক্ষেত্রে বিপদ যে আরও বড়ল। কারণ, ছোট ছোট টুকরোগুলি কোথায় কার মাথায় এসে পড়বে তা বলা বিজ্ঞানিকদেরও অসাধ্য। তাঁরা শুধুমাত্র বলতে পেরেছেন যে টুকরোগুলি, পৃথিবীর ৪৩ ডিগ্রি উত্তর ও দক্ষিণ দ্রাঘিমায় প্রবেশ করতে পারে। এবং পৃথিবীর মাটি ছোঁয়ার দু’দিন আগে পর্যন্তও বলা সম্ভব হবে না, টুকরোগুলি কোথায় পড়বে।

আনুমানিক, চলতি বছরের মার্চের শেষের দিকে তিয়ানগং-১ উপগ্রহের ভগ্নাংশ পৃথিবীর মাটি ছোঁবে বলে জানিয়েছেন মহাকাশ বিজ্ঞানীরা।

LEAVE A REPLY

one × 3 =