মহাকাশে লাল গাড়ি!

0

স্কাই নিউজ প্রতিবেদক: ফটোশপ-এর কেরামতি! ছবিটি দেখলে প্রথমে সেটাই মনে হওয়া স্বাভাবিক। কিন্তু তা একেবারেই নয়। মহাশূন্যে সত্যিই ভেসে বেড়াচ্ছে একটি লাল গাড়ি। আর তার অনতিদূরেই রয়েছে পৃথিবী।

এ কীর্তি অবশ্য নাসা-র নয়। কাণ্ডটি ঘটিয়েছে ‘স্পেস এক্সপ্লোরেশন টেকনোলজিস কর্পোরেশন’ নামে একটি বেসরকারি সংস্থা। মার্কিন দেশের এই সংস্থাটি মহাকাশ সম্বন্ধীয় নানা উপকরণ তৈরি করে। ২০০২ সালে এই সংস্থাটি শুরু করেন ইলোন মাস্ক। তাঁর মূল উদ্দেশ্য মঙ্গলগ্রহকে মনুষ্য বাসোপযোগী করা তোলা। এবং সেই মর্মেই ‘স্পেস-এক্স’ তৈরি করেছে ‘ফ্যালকন’ ও ‘ড্রাগন’ নামে দু’টি রকেট। প্রসঙ্গত, এই রকেট দু’টি তৈরির প্রস্তাব নাসা থেকেই দেওয়া হয়।

গত মঙ্গলবার, ফ্যালকন হেভি রকেটের প্রথম উৎক্ষেপণ করে স্পেস-এক্স। সঙ্গে ছিল একটি ইলেক্ট্রিক গাড়ি। আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম হাফিংটন পোস্ট-এর এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে যে, ফ্যালকন হেভি বর্তমানের সব থেকে শক্তিশালী রকেট। সংস্থার তৈরি ৩টি ফ্যালকন-৯ রকেট মিলিয়ে একটি ‘ফ্যালকন হেভি’ তৈরি হয়। ২৭ ইঞ্জিন-যুক্ত ফ্যালকন হেভি আকাশে ওড়ার জন্য প্রয়োজন হয় ৫০ লক্ষ পাউন্ড ‘থ্রাস্ট’, যা ১৮টি বোয়িং বিমানের সমান। ফ্যালকন হেভি বহন করতে পারে ১,৪০,০০০ পাউন্ড ওজন।

মঙ্গলবারের এই রকেট লঞ্চ নিয়ে বেশ সংশয়ে ছিলেন সংস্থার কর্ণধার ইলোন মাস্ক। এক সাক্ষাৎকারে, জনপ্রিয় সংবাদমাধ্যম সিএনএন-কে মজা করে তিনি জানিয়েছেন, প্রত্যক্ষদর্শীদের কাছে এই ঘটনা এক অভূতপূর্ব রকেট লঞ্চ হতে পারে, বা বিশাল এক আলোর খেলা।

ফ্যালকন হেভির পরীক্ষামূলক এই উৎক্ষেপণের মূল লক্ষ্য ছিল মহাশূ্ন্যে একটি গাড়ি নিয়ে যাওয়ার। উৎক্ষেপণের প্রায় ছ’ঘণ্টা পরে একটি লাল রঙের কনভার্টিবল ‘রোডস্টার’-কে দেখা যায় পৃথিবীর অক্ষরেখায়। গাড়ির স্টিয়ারিঙে ছিল চালকও, মহাকাশচারীর পোশাকে। তবে, সেটি কেবল একটি পুতুল ছিল বলে জানা গিয়েছে।

ফ্লোরিডার কেনেডি স্পেস সেন্টার থেকে ফ্যালকন হেভির সঙ্গে যে তিনটি বুস্টার উৎক্ষেপণ করা হয়েছিল, তার মধ্যে দুটি ফ্যালকন-৯ সফলভাবে পৃথিবীতে নেমে আসে, কেপ ক্যানাভেরলে। তৃতীয়টি অতলান্তিক মহাসাগরের জলে এসে পড়ে বলে জানানো হয়েছে সংস্থার তরফ থেকে।

পরের বার একটি ‘টেসলা রোডস্টার’ মহাকাশে পাঠানোর পরিকল্পনা করেছেন ইলোন মাস্ক। প্রসঙ্গত, এবারের লাল গাড়িতে একটি ছোট্ট বার্তা ছিল এলিয়েনদের জন্য— মেড অন আর্থ বাই হিউম্যানস।

 

LEAVE A REPLY

fifteen − eight =