বিশ্ব জুড়ে শেয়ার বাজারে ধস

0

স্কাই নিউজ প্রতিবেদক: পশ্চিমে আমেরিকা থেকে পূর্বে জাপান – সর্বত্র ধস নেমেছে শেয়ার বাজারে৷ বাদ যায়নি বাংলাদেশ- ভারতীয় শেয়ার বাজারও৷ সাধারণ আমানতকারীদের কপালে চিন্তার ভাঁজ৷

২০১১ সালের পর এত বড় ধস দেখেনি ওয়াল স্ট্রিট৷ শেয়ার বাজার নিয়ে চিন্তার ভাঁজ বিশ্বের সর্বত্র৷ বিশেষজ্ঞেরা বলছেন, একদিনে মার্কিন শেয়ার বাজার ১৬০০ পয়েন্ট নেমে গিয়েছে৷ যা শুধু চিন্তার নয়, রীতিমতো আতঙ্কের৷

বিশ্ব জুড়ে শেয়ারের ব্যাপারীরা ওয়াল স্ট্রিটের শেয়ার পয়েন্টের দিকে তাকিয়ে থাকেন৷ কারণ, অ্যামেরিকার শেয়ারের উপর নির্ভর করে বিশ্বের প্রায় সমস্ত রাষ্ট্রের শেয়ার সূচক৷ ফলে ওয়াল স্ট্রিটে ধস নামার প্রায় সঙ্গে সঙ্গেই জাপান শেয়ার বাজারেও লাল সংকেত জারি হয়৷ সেখানকার শেয়ার সূচক ‘নিক্কেই’ নেমে যায় বছরের সবচেয়ে কম পয়েন্টে৷ সূত্রের খবর দিনের শেষে সেখানকার শেয়ার সূচক ৪ দশমিক ৬ শতাংশ কমে গিয়েছে৷

উপমহাদেশে ভারতের শেয়ার বাজার গুরুত্বপূর্ণ৷ বস্তুত, গত কয়েক বছরে ভারতের শেয়ার বাজারে বিনিয়োগ বহুগুণ বৃদ্ধি পেয়েছে৷ বিশেষজ্ঞেরা বলছেন, ওয়াল স্ট্রিট এবং নিকেইয়ের ধসের সরাসরি প্রভাব পড়েছে ভারতের শেয়ার সূচকেও৷  ফলে প্রায় ৪ দশমিক ৯৫ লক্ষ কোটি টাকার ক্ষতি হয়েছে একদিনেই৷ ভারতের শেয়ার সূচক সেনসেক্স এবং নিফটি দিনের শেষে নেমে লাল সংকেতের নীচে গিয়ে পৌঁছেছে৷ মাথায় হাত বিনিয়োগকারীদের৷

এত মানুষের আমানতের জন্য গত কয়েক বছরে এদেশের শেয়ার বাজারও স্বাভাবিক অবস্থায় ছিল৷ বড় সড় ধস নামেনি বহুদিন৷ কিন্তু সোমবারের ধস সাধারণ মানুষের কপালেও চিন্তার ভাঁজ ফেলেছে৷ অনেকেই মনে করছেন, ওয়াল স্ট্রিট দ্রুত ধসের মেরামত করতে না পারলে দক্ষিণ এশিয়ার বাজার আরো বিপর্যস্ত হবে৷ এবং সেক্ষেত্রে সাধারণ মানুষের খোলা বাজারে টাকা জমানোর প্রবণতাও খানিকটা বাধাপ্রাপ্ত হবে৷

 

LEAVE A REPLY

18 + twenty =