বন্ধ হয়নি রোহিঙ্গা অনুপ্রবেশ

0

স্কাইনিউজ প্রতিবেদক: এখনো বন্ধ হয়নি বাংলাদেশে রোহিঙ্গা অনুপ্রবেশ। নাফ নদী পাড়ি দিয়ে প্রায় প্রতিদিনই আগমন ঘটছে নতুন কোন রোহিঙ্গার।

সর্বশেষ গত ২ দিনে টেকনাফ সীমান্ত দিয়ে অনুপ্রবেশ ঘটেছে ২২৬ রোহিঙ্গার। রোববার সকাল থেকে বিকেল পর্যন্ত টেকনাফের সাবরাং ইউনিয়নের হারিয়াখালী সীমান্ত পয়েন্ট দিয়ে ৪১ পরিবারের ১৪১ জন আসেন। আগের দিন ২২ পরিবারের ৮৫ জন এসেছিলেন। তাদের বেশিরভাগ নারী ও শিশু।

অনুপ্রবেশকারি রোহিঙ্গারা জানিয়েছেন, খাদ্য সংকটের কারণে এ দেশে চলে আসতে বাধ্য হয়েছেন তারা।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, ফেব্রুয়ারি মাসের গত ২২ দিনে বাংলাদেশে এসেছে ৬৫৯ রোহিঙ্গা পরিবার। এই  পরিবারগুলোর সদস্য সংখ্যা আড়াই হাজারের ওপরে। এরা সবাই দক্ষিণ-পূর্বাঞ্চলীয় বাংলাদেশ ও পশ্চিমাঞ্চলীয় মিয়ানমার সীমান্ত দিয়ে নাফ নদীর মোহনা হয়ে বাংলাদেশে এসেছে। পরে টেকনাফের নয়াপাড়া ও উখিয়ার বালুখালী রোহিঙ্গা শিবিরে তাদের রাখা হয়েছে।

অপরদিকে, বাংলাদেশে আশ্রয় নেওয়া রোহিঙ্গাদের জন্য বিদেশি ত্রাণ-সহায়তা কমে আসছে। মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ ছাড়াও সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয় ও দফতরগুলোতে কক্সবাজার জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে সর্বশেষ গত ১৮ ফেব্রুয়ারি ‘বাস্তুচ্যুত মিয়ানমার নাগরিক’দের মধ্যে ত্রাণ কার্যক্রম পরিচালনা ও আনুষঙ্গিক বিষয় নিয়ে একটি প্রতিবেদন দেওয়া হয়। প্রতিবেদনে দেশি-বিদেশি ত্রাণ সামগ্রীর একটি চিত্র তুলে ধরা হয়েছে। এতে বলা হয়, সরকারের পক্ষ থেকে এখন পর্যন্ত ৫ লাখ মেট্রিক টন চাল, প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ ও কল্যাণ তহবিল থেকে ২০ লাখ টাকা, দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয় থেকে ৩০ লাখ টাকা অর্থ বরাদ্দ করা হয়। সরকারের পক্ষ থেকে পাওয়া ৫০ লাখ টাকা এবং ১০ হাজার মেট্রিক টন চাল ইতোমধ্যেই বিতরণ করা হয়েছে।

LEAVE A REPLY

six − two =