`প্রয়োজনে ৩২ ধারায় সাংবাদিকদের সুরক্ষায় উপধারা হবে’

0

স্কাই নিউজ প্রতিবেদক: প্রস্তাবিত ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের ৩২ ধারা নিয়ে সমালোচনার মধ্যে আইনমন্ত্রী আনিসুল হক বলেছেন, প্রয়োজন হলে ‘অনুসন্ধানী সাংবাদিকতার সুরক্ষায়’ ওই ধারার সঙ্গে একটি উপ ধারা যোগ করা যেতে পারে।

তবে ওই ধারা সাংবাদিকদের ‘ঘায়েল করার জন্য করা হয়নি’ মন্তব্য করে বিষয়টি ‘নিজেদের ঘাড়ে’ না নেওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন তিনি।

ল’রিপোর্টার্স ফোরামের উদ্যোগে মঙ্গলবার এক মিট দ্য প্রেস অনুষ্ঠানে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে আইনমন্ত্রীর এমন বক্তব্য আসে।

প্রস্তাবিত আইনের ৩২ ধারা অনুসন্ধানী সাংবাদিকতার বাধা হবে না দাবি করে তিনি বলেন, “ন্যায়সঙ্গত কারণ থাকলে দরকার হলে জনস্বার্থে ও অনুসন্ধানী সাংবাদিকতার সুরক্ষায় ৩২ ধারায় একটি সাব সেকশন অন্তভূর্ক্ত করা হবে।”

তথ্য প্রযুক্তি আইনের ৫৭ ধারায় সাংবাদিকদের হয়রানি ও মত প্রকাশের স্বাধীনতা খর্বের অভিযোগ ওঠায় প্রতিবাদের মুখে ওই ধারাটি বাতিলের উদ্যোগের সঙ্গে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন করছে সরকার।

এ আইন পাস হলে তা অনুসন্ধানী সাংবাদিকতার কণ্ঠ রোধ করার জন্য ৫৭ ধারার চেয়েও আরও বড় অস্ত্র হিসেবে ব্যবহৃত হবে বলে আশঙ্কা করছেন সংবাদকর্মী ও মানবাধিকারকর্মীরা।

কোনো সাংবাদিকের অনুসন্ধানী কাজের জন্য কোনো মামলা হলে তার পক্ষে আদালতে দাঁড়াবেন বলেও প্রতিশ্রুতি দেন পেশায় আইনজীবী আনিসুল হক।

ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটিতে এই মিট দ্য প্রেস অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন সংগঠনের সভাপতি ডেইলি স্টারের সাংবাদিক আশুতোষ সরকার। সংগঠনের সাবেক সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক ও জ্যেষ্ঠ সদস্যরাও সেখানে উপস্থিত ছিলেন।

 

LEAVE A REPLY

11 + 1 =