‘কলকাতা’ ডাকলে সাড়া না দিয়ে পারি না-জেমস

0

স্কাইনিউজ প্রতিবেদক: ফারুক মাহফুজ আলম বললে নামটা অচেনাই লাগে। কিন্তু জেমস বললেই এক ডাকে চিনে নেবেন দুই বাংলার সঙ্গীত প্রিয় মানুষ। বিশেষত নতুন প্রজন্ম তো জেমস বলতে উচ্ছ্বসিত। তাই ডাকনামটাই তাঁর আসল নাম হয়ে গেছে সেই কবে থেকে। সেই কথাই বলছিলেন জেমস, কলকাতায় ‘‌গান পীরিতি’‌র ভ্যালেন্টাইনস ডে-‌র কনসার্টে যোগ দিতে এসে। এস ভি এফের অফিসে অনুপম রায়, সাহানা বাজপেয়ী, ইমন চক্রবর্তীদের সঙ্গে আড্ডা হল তাঁর। তারই ফাঁকে কথা বললেন গান, কলকাতা, ‘‌গান পীরিতি’‌ নিয়ে।

বললেন, শুধু ভ্যালেন্টাইনস ডে নিয়ে আলাদা কোনও অনুভূতি নেই। প্রেম তো বিশেষ একটা দিনের নয়। তবে, জেমস বললেন, এই দিনে কলকাতার শ্রোতাদের কাছে গান শোনাতে পারাটা অবশ্যই একটা বিশেষ অনুভূতি।

জেমসের বেশ কিছু গান জনপ্রিয় দুই বাংলায়। যার মধ্যে আছে তাঁর ‘‌মা’‌, ‘‌দুখিনী দুঃখ কোর না’‌ বা ‘‌তারায় তারায়’‌। হিন্দিতে ‘‌চল চলে’‌ বা ‘‌ভিগি ভিগি’‌ তাঁকে সারা ভারতেই পরিচিতি দিয়েছে। তবে, মুম্বইতে স্থায়ীভাবে থেকে হিন্দি গান করার ইচ্ছে তাঁর নেই। জানালেন, নতুন গান তৈরি করছেন, যা এবছরেই ইউটিউবে রিলিজ করবে। নিজের বাংলা গান হিন্দি রূপান্তরে করারও ইচ্ছে রয়েছে। গানের পাশাপাশি রয়েছে ফটোগ্রাফিরও শখ। তবে, গান-‌ই জীবন—স্পষ্টই জানালেন জেমস। আর কোথায় গান গাইতে সবচেয়ে ভাল লাগে?‌ তাঁর স্পষ্ট উত্তর, প্রথমত বাংলাদেশে। দ্বিতীয়ত, এপার বাংলায়, কলকাতায়। বললেন, কলকাতায় গান গাইতে এলে মনে হয়, নিজের জায়গাতেই আছি। শ্রোতারাও খুব কাছের। কলকাতা থেকে গান গাওয়ার ডাক পেলে তাই সাড়া না দিয়ে পারি না—বলে উঠলেন জেমস।

LEAVE A REPLY

3 × three =