কঠোর আন্দোলনের হুঁশিয়ারি সাংবাদিকদের

0

স্কাই নিউজ প্রতিবেদক: প্রস্তাবিত ডিজিটাল কালো আইন সংশোধন ও ৩২, ১৯ ধারা অবিলম্বে বাতিল না করলে কঠোর অান্দোলনে যাওয়ার হুঁশিয়ারি দিয়েছেন সাংবাদিকরা।

শনিবার সকালে রাজধানীর শাহাবাগে ‘অামরা সংবাদকর্মী’ ব্যানারে অায়োজিত মানববন্ধন থেকে এ হুশিয়ারি দেয়া হয়।

মানববন্ধনে ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক সোহেল হায়দার চৌধুরী বলেন, সরকার অামাদের কথা দিয়েছিল ৫৭ ধারা বাতিল করা হবে। কিন্তু বাতিলের নামে ডিজিটাল তথ্য প্রযুক্তি অাইনের নামে যে কালো অাইন করা হয়েছে, তা কোনো ভাবেই গ্রহণযোগ্য নয়। অামরা সংবাদকর্মীরা দেশের জন্য কাজ করি, দেশের মানুষের জন্য কাজ করি। এই অাইন দিয়ে অামাদের কাজ বন্ধ করার ষড়যন্ত্র করা হচ্ছে।

তিনি বলেন, এই কালো অাইন দিয়ে সাংবাদিকদের কণ্ঠ রোধ করার অপচেষ্টা চলছে।অবিলম্বে এই অাইন বাতিল না করলে কঠোর অান্দোলন গড়ে তোলা হবে।

অাইনমন্ত্রী অানিসুল হকের সমালোচনা করে সোহেল হায়দার চৌধুরী বলেন, সারা দেশে সাংবাদিকদের নামে এই ৩২ ধারায় মামলা হবে। অাপনি কত জায়গায় গিয়ে লড়বেন। নাকি মন্ত্রণালয়ের কাজ করবেন।  এসব তাল বাহানা বন্ধ করেন। কালো অাইন বন্ধ করেন।

ঢাকা রিপোর্টাস ইউনিটির সাধারণ সম্পাদক শুকুর অালী শুভ বলেন, কোন ধরনের কলাকৌশল, কালো অাইন কিংবা জেল জরিমানা করে অনুসন্ধানী সাংকাদিকতা বন্ধ করা যাবে না। হয়রানী নির্যাতন বা কারো রক্তচুক্ষ অামাদের থামাতে পারবে না। সত্য প্রকাশে, দেশ ও জাতির কল্যাণে, সত্যের সন্ধানে অামরা সদায় দুর্বার, দুর্জয়। অামাদের অবিচল এ পথ চলা কোন বাধাই থামাতে পারবে না।

ঢাকা রিপোর্টাস ইউনিটির সাবেক সাধারণ সম্পাদক সাজ্জাদ অালম খান তপু বলেন, অামাদের দেশের সংবিধান বলে গণমাধ্যম স্বাধীন। কিন্তু সেই গণমাধ্যমের স্বাধীনতা অামরা দেখছি না। তাই অাজ অামরা রাজপথে নামতে বাধ্য হয়েছি। অামরা সংবিধানের অধিকার সমুন্নত রাখতে চাই। তাই অবিলম্বে এই ৩২ ধারা বাতিল করতে হবে।

তিনি বলেন, এই ধারা বাতিল না হলে সাংবাদিকতা বলতে কিছু থাকবে না। এই কালো অাইন করে গণমাধ্যমকে সরকারের মুখোমুখি দাঁড় করানো হয়েছে।

অবিলম্বে এই ৩২ ধারা বাতিল না হলে দুর্বার অান্দোলন গড়ে তোলা হবে বলেও হুঁশিয়ারি দেন এই সাংবাদিক নেতা।

এসময় মানববন্ধন বিভিন্ন গণমাধ্যমের কয়েকশ’ সংবাদকর্মী উপস্থিত ছিলেন।

LEAVE A REPLY

four × 1 =