এ কেমন আন্দোলন!

0

নিজস্ব প্রতিবেদক: ছাত্র-ছাত্রির আন্দোলন নতুন কিছু না। এই দেশের জন্মের আগ থেকেই প্রতিটি আন্দোলনের অগ্রভাগে থেকেছেন এই ছাত্র-ছাত্রিরাই। দেশের প্রতিটি গণতান্ত্রিক আন্দোলনেও এদের ভূমিকা অবিস্মরণীয়। বলা যায়, বাংলাদেশের অস্তিত্বের সঙ্গেই রয়েছে তাদের সক্রিয় অংশগ্রহণ। এমনকি সাংস্কৃতিক আন্দোলনেও এই বয়েসীরাই রেখেছে এবং রাখছে বহুমাত্রিক অবদান।

কিন্তু সাম্প্রতিক কিছু আন্দোলনে তাদের অংশগ্রহণ আমাদের আতংকিত করেছে। যে বিষয়ে তাদের পথে নামতে হয়েছে, তা এককথায় আমাদের উলঙ্গ শিক্ষাব্যবস্থাকে চোখে আঙ্গুল দিয়ে দেখিয়েছে।

পরীক্ষার সময়সূচি এবং ফল প্রকাশের জন্যও যে আন্দোলন করতে হবে, দুঃস্বপ্নের মতোন ঘোরলাগা এই বিষয়ের কথা দুঃস্বপ্নেও অনেকে ভাবেন নি।

আন্দোলন করতে গিয়ে, অনেক ছাত্র-ছাত্রি আহত হয়েছেন। কেউ হয়েছেন অন্ধ আবার কেউ পঙ্গু।

বিভিন্ন খবরের কাগজের তথ্য অনুযায়ী, অপরিকল্পিতভাবে নাকি এসব কলেজকে অধিভুক্ত করা হয়েছিল! ভাল কথা- যদি তাই-ই হয়, তাহলে সঠিক সময়ে নির্দিষ্ট কলেজে সেই ঘোষণাটা পাঠানো হলো না কেন?

আর বলিহারী আমাদের শিক্ষককূল- অমন বিষয়ে যদি ছাত্র-ছাত্রিদের আন্দোলনই করতে হবে, তাহলে জনগণের কোটি-কোটি টাকা খরচ করে, ভর্তুকি দিয়ে আর কী লাভ?

অচিরেই এই সমস্যার সমাধান প্রয়োজন। কারণ, মনে রাখা প্রয়োজন- অন্ধ হলে প্রলয় বন্ধ থাকবে না।

LEAVE A REPLY

twelve + nine =