উন্নয়নশীল দেশের মর্যাদা পাচ্ছে বাংলাদেশ

0

স্কাই নিউজ প্রতিবেদক: আগামী মার্চ মাসে স্বল্পোন্নত দেশ থেকে উন্নয়নশীল দেশের মর্যাদা পাচ্ছে বাংলাদেশ। স্বল্পোন্নত (এলডিসি) থেকে উত্তরণের ক্ষেত্রে জাতিসংঘ কর্তৃক নির্ধারিত ৩টি মানদন্ড যথা- মাথাপিছু জিএনআই, মানবসম্পদ সূচক এবং অর্থনৈতিক সংকট সূচকের মান ইতোমধ্যে অর্জিত হয়েছে।

তবে এই সুখবরের সঙ্গে শুল্কমুক্ত বাণিজ্য সুবিধাসহ আরো বেশ কিছু চ্যালেঞ্জ রয়েছে বাংলাদেশের। সংশ্লিষ্টরা বলছেন, সেই চ্যালেঞ্জ মোকাবেলার সক্ষমতাও বাংলাদেশের রয়েছে। বরং উন্নয়নশীল দেশে রূপান্তর হলে বিশ্বে সুনামের পাশাপাশি বিনিয়োগ, বাণিজ্যে নতুন কিছু সুবিধাও পাওয়া যাবে। বিনিয়োগে বিদেশীদের আস্থা বাড়বে। বহির্বিশ্বে বাংলাদেশের ভাবমূর্তি আরও উজ্জ্¦ল হবে।

বৃহস্পতিবার রাজধানীর সোনারগাঁ হোটেলে বাংলাদেশ অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগের (ইআরডি) উদ্যোগে দু’দিনব্যাপী অনুষ্ঠিত বাংলাদেশ উন্নয়ন ফোরামের ‘এলডিসি অর্জনের চ্যালেঞ্জ ও সুবিধাসমূহ’ শীর্ষক সেমিনারে বক্তারা এসব কথা বলেন। আলোচনায় অংশ নেন প্রধানমন্ত্রীর অর্থনৈতিক বিষয়ক উপদেষ্টা ড. মশিউর রহমান, ইআরডি সচিব কাজী শফিকুল আযম, বিশ্ব ব্যাংকের ঢাকা অফিসের লিড ইকোনোমিস্ট ড. জাহিদ হোসেন, পররাষ্ট্রমন্ত্রী মো. শাহারিয়ার আলম, বাণিজ্য সচিব শুভাশিষ বসু ও অর্থনীতিবিদ ড. আহসান এইচ মুনসুর প্রমুখ।

প্রসঙ্গত, ৪২ বছর স্বল্পোন্নত দেশের (এলডিসি) তালিকায় থাকার পর বাংলাদেশ চলতি বছর উন্নয়নশীল দেশ হওয়ার স্বীকৃতি পেতে যাচ্ছে। বাংলাদেশের জন্য এই অর্জন অনেক মর্যাদার বলে মনে করা হচ্ছে। জানা গেছে, এলডিসি থেকে উত্তরণের জন্য মার্চে যে পর্যালোচনা হবে, তাতে মাথাপিছু আয় হতে হবে কমপক্ষে ১২৩০ ডলার। বিশ্বব্যাংক নির্ধারিত এ্যাটলাস পদ্ধতিতে এ আয় নির্ধারণ করা হয়।

LEAVE A REPLY

two × four =